সোমবার, ১০ জুন ২০২৪, ০৮:৩১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
আবারো আলোচনায় সেই রবিজুল, দুজনকে তালাক দিতে ২২ গ্রাম প্রধানের চাপ : প্রতিবাদী কন্ঠ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর কলেজে হামলা ও ভাংচুরের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন : প্রতিবাদী কন্ঠ কুষ্টিয়ায় লিজকৃত রেলের জমি বিক্রি করে বাড়ী নির্মান : প্রতিবাদী কন্ঠ সরকার কোন দূর্ণীতিবাজকে পৃষ্টপোশকতা করছে না -এমপি হানিফ : প্রতিবাদী কন্ঠ কুষ্টিয়ায় ভেজাল খাদ্য প্রতিরোধে ভ্রাম্যমান ল্যাবরেটরি ভ্যানের যাত্রা শুরু : প্রতিবাদী কন্ঠ কুষ্টিয়ায় নিরাপদ খাদ্য বিষয়ক জনসচেতনতামূলক কর্মশালায় মিনিকেট নামে কোনো ধান নেই : প্রতিবাদী কন্ঠ সাংবাদিক ইউনিয়ন কুষ্টিয়ার সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত : প্রতিবাদী কন্ঠ কুষ্টিয়ায় অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত পান চাষিদের মাঝে চেক বিতরণ : প্রতিবাদী কন্ঠ কুষ্টিয়ায় ১০ দিন পর ইজিবাইক চালকের লাশ উদ্ধার : প্রতিবাদী কন্ঠ বিজয়ী প্রার্থীকে ফুলের মালা পরিয়ে ভাইরাল দৌলতপুরের ওসি রফিকুল : প্রতিবাদী কন্ঠ

কুষ্টিয়ায় এক সিডিউলেই বিএনপি’র এক নেতার নামে লালনের মাঠ বরাদ্দ! : প্রতিবাদী কন্ঠ

আব্দুর রহমান :
  • প্রকাশিত সময় : শুক্রবার, ৬ অক্টোবর, ২০২৩
  • ৭০ পাঠক পড়েছে

আব্দুর রহমান : কুষ্টিয়ায় বাউল সম্রাট লালন সাঁইয়ের তিরোধান দিবস উপলক্ষে আগামী ১৭, ১৮, ১৯ অক্টোবর ৩ দিনব্যাপী লালন মেলা অনুষ্ঠিত হবে। এ লক্ষে লালনের মাঠ বরাদ্দের জন্য লালন একাডেমির সভাপতি ও জেলা প্রশাসক টেন্ডার আহবান করেন। এতে জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক বাচ্চুর নামে একটি মাত্র সিডিউল জমা দেখিয়ে তাকে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে লালন মেলার মাঠ। মেলার জন্য মাঠের জায়গা নির্ধারণ করে বরাদ্দ দেওয়া হলেও তা মানা হয় না। টাকা বেশি তুলতে বেশি বেশি জায়গায় দোকান বসাতে থাকেন ইজারাদার। এ কারণে দিনে দিনে কোনঠাসা হয়ে পড়ছেন লালন উৎসবে আসা সাধু- বাউলরা। পুরোমাঠের এক কোনে সামান্য জায়গা রাখা হয় বাউলদের। বাউল ফজল মিয়া বলেন, লালন তিরোধান দিবস কাদের জন্য? বাউল, লালন ভক্ত অনুরাগীদের নাকি মেলার টেন্ডারদাতা, ব্যবসায়ী ও দোকানীদের? আমাদের ইলিশ ফাইলের মত বাঁশ দিয়ে ঘিরে রাখে, জায়গা এতো অল্প যে নড়াচড়াও করতে পারিনা, ভক্তদের সাথে কথা পরামর্শ করতেও পারিনা।
এদিকে রিটেন্ডার না করে এক সিডিউলে মেলার মাঠ বরাদ্দের ঘটনা এই প্রথম। অতীতের অভিজ্ঞদের বাইরে রেখে একেবারেই অনভিজ্ঞ ও জেলা বিএনপির নেতাকে এক সিডিউলে বরাদ্দ দেওয়ার এমন সিদ্ধান্ত কেন নিলেন? তা জানতে কথা হয় জেলা প্রশাসক এহেতেশাম রেজার সঙ্গে। তিনি বলেন, একটি সিডিউল পড়লেও তাকে বরাদ্দ দিতে আইনগত কোন বাঁধা নেই। কে বিএনপি কে কোনপন্থী তা সিডিউলে উল্লেখ থাকেনা। এটি আমার জানার বিষয় না।
উল্লেখ্য মেলার মাঠ বরাদ্দ পাওয়া আব্দুর রাজ্জাক বাচ্চু বিএনপিপন্থী সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি।

নিউজটি শেয়ার করে আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
© All rights reserved © 2021-2022 । প্রতিবাদী কন্ঠ
Design and Developed by DONET IT
SheraWeb.Com_2580