শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০২:৪০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কুষ্টিয়ায় কোরবানীর ঈদকে সামনে রেখে ২ লক্ষাধিক পশু প্রস্তুত : প্রতিবাদী কন্ঠ আবারো আলোচনায় সেই রবিজুল, দুজনকে তালাক দিতে ২২ গ্রাম প্রধানের চাপ : প্রতিবাদী কন্ঠ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর কলেজে হামলা ও ভাংচুরের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন : প্রতিবাদী কন্ঠ কুষ্টিয়ায় লিজকৃত রেলের জমি বিক্রি করে বাড়ী নির্মান : প্রতিবাদী কন্ঠ সরকার কোন দূর্ণীতিবাজকে পৃষ্টপোশকতা করছে না -এমপি হানিফ : প্রতিবাদী কন্ঠ কুষ্টিয়ায় ভেজাল খাদ্য প্রতিরোধে ভ্রাম্যমান ল্যাবরেটরি ভ্যানের যাত্রা শুরু : প্রতিবাদী কন্ঠ কুষ্টিয়ায় নিরাপদ খাদ্য বিষয়ক জনসচেতনতামূলক কর্মশালায় মিনিকেট নামে কোনো ধান নেই : প্রতিবাদী কন্ঠ সাংবাদিক ইউনিয়ন কুষ্টিয়ার সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত : প্রতিবাদী কন্ঠ কুষ্টিয়ায় অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত পান চাষিদের মাঝে চেক বিতরণ : প্রতিবাদী কন্ঠ কুষ্টিয়ায় ১০ দিন পর ইজিবাইক চালকের লাশ উদ্ধার : প্রতিবাদী কন্ঠ

গাইনি চিকিৎসকের অবহেলায় আবারো বন্দ হতে যাচ্ছে অপারেশন কার্যক্রম : প্রতিবাদী কন্ঠ

রেদোয়ানুল হক সবুজ :
  • প্রকাশিত সময় : রবিবার, ২৮ মে, ২০২৩
  • ১৯৩ পাঠক পড়েছে

রেদোয়ানুল হক সবুজ : কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অত্যাধুনিক অপারেশন থিয়েটার আবারো বন্ধ হতে চলেছে। দীর্ঘ ২০ বছর ধরে অপারেশন কার্যক্রম বন্ধ থাকার পর চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে বহুল প্রতীক্ষিত অত্যাধুনিক অপারেশন থিয়েটার বসানো হয়। তারপর থেকে বিভিন্ন ধরনের অপারেশন ও গাইনি সিজারিয়ান অপারেশনের রোগী চিকিৎসা সেবা নিতে আসতে থাকে। কিন্তু বিধি বাম গাইনি কনসালটেন্ট ডাক্তার ফারহানা মনসুর ঝুমুরের অনিয়মিত আসা-যাওয়া, এবং আসলেও কম সময় উপস্থিত থাকার কারণে চিকিৎসা সেবা ও অপারেশন থেকে বঞ্চিত হচ্ছে রোগীরা। এছাড়াও যেদিন হাসপাতালে উপস্থিত হন সর্বোচ্চ পাঁচ থেকে ছয়টি রোগী দেখে হাসপাতাল ছেড়ে চলে যান বলে অভিযোগ করেছেন হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা গাইনি রোগীরা। উল্লেখ্য উক্ত হাসপাতালে রবি ও বুধবার সিজারিয়ান অপারেশন চালু থাকলেও ডাক্তার না থাকায় রোগীর চেকআপ ও প্রস্তুত না করতে পারায় গত তিন মাসে মাত্র ১৫টি সিজারিয়ান অপারেশন হয়েছে। গাইনি রোগীরা হাসপাতালে এসে ডাক্তারকে না পেয়ে অধিক খরচে ক্লিনিকে সেবা নিতে হচ্ছে ফলে সরকারি সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে গাইনি রোগীরা। গাইনি কনসালটেন্ট ডাক্তার ফারহানা মনসুর ঝুমুর তিনি গত ফেব্রুয়ারি মাসে মিরপুর হাসপাতালে যোগ দেন। হাসপাতালে ঠিকমত সেবা না দিলেও কুষ্টিয়া শহরের পপুলার ও ট্রমাতে নিয়মিত রোগী দেখছেন বলে সত্যতা পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে ডাক্তার ফারহানা ঝুমুর বলেন, মাঝে মাঝে অসুস্থ থাকার কারনে অনুপস্থিত থাকতে হয় আমাকে। তবে কম সময় অফিস করার বিষয় অস্বীকার করেন তিনি। তিন মাসে মাত্র ১৫ টি সিজার হয়েছে এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলতে বলেন তিনি। এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার পীযূষ কুমার বলেন, উনার রেগুলার পোস্টিং এখানে। প্রতিনিয়তই উনার অপারেশন ছাড়াও এখানে সেবা দেয়ার কথা রয়েছে। আমার কাছেও অভিযোগ এসেছে এবং শুনেছি উনি হাসপাতলে এসে কম সময় উপস্থিত থাকেন এতে অনেক রোগী ফিরে যান। এমন অভিযোগ রয়েছে কিন্তু হাসপাতালে অনুপস্থিত থাকে বিষয়টি আপনাদের থেকে শুনলাম বিষয়টি হাজিরা খাতা যাচাই করে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ বিষয়ে কুষ্টিয়ার সিভিল সার্জন আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, আমি অনেক কিছুই জানি অভিযোগ দিতে বলেন, বিষয়টি দেখব।

নিউজটি শেয়ার করে আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
© All rights reserved © 2021-2022 । প্রতিবাদী কন্ঠ
Design and Developed by DONET IT
SheraWeb.Com_2580