রবিবার, ০৯ জুন ২০২৪, ০২:৪৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
আবারো আলোচনায় সেই রবিজুল, দুজনকে তালাক দিতে ২২ গ্রাম প্রধানের চাপ : প্রতিবাদী কন্ঠ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর কলেজে হামলা ও ভাংচুরের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন : প্রতিবাদী কন্ঠ কুষ্টিয়ায় লিজকৃত রেলের জমি বিক্রি করে বাড়ী নির্মান : প্রতিবাদী কন্ঠ সরকার কোন দূর্ণীতিবাজকে পৃষ্টপোশকতা করছে না -এমপি হানিফ : প্রতিবাদী কন্ঠ কুষ্টিয়ায় ভেজাল খাদ্য প্রতিরোধে ভ্রাম্যমান ল্যাবরেটরি ভ্যানের যাত্রা শুরু : প্রতিবাদী কন্ঠ কুষ্টিয়ায় নিরাপদ খাদ্য বিষয়ক জনসচেতনতামূলক কর্মশালায় মিনিকেট নামে কোনো ধান নেই : প্রতিবাদী কন্ঠ সাংবাদিক ইউনিয়ন কুষ্টিয়ার সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত : প্রতিবাদী কন্ঠ কুষ্টিয়ায় অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত পান চাষিদের মাঝে চেক বিতরণ : প্রতিবাদী কন্ঠ কুষ্টিয়ায় ১০ দিন পর ইজিবাইক চালকের লাশ উদ্ধার : প্রতিবাদী কন্ঠ বিজয়ী প্রার্থীকে ফুলের মালা পরিয়ে ভাইরাল দৌলতপুরের ওসি রফিকুল : প্রতিবাদী কন্ঠ

কুষ্টিয়ায় প্রবাসী জয় নেহাল ও খন্দকার বাড়ির উদ্যোগে টিউবওয়েল ও কৃষক ছাউনির উদ্বোধন

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত সময় : শুক্রবার, ৪ জুন, ২০২১
  • ৬০৭ পাঠক পড়েছে

গত ২৩ সে মে রবিবার বিকেলে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার বালিয়াপাড়া গ্রামের মাঠে প্রবাসী জয় নেহাল ও খন্দকার বাড়ির উদ্যোগে সুপেয় পানির জন্য রমজান মাসে স্থাপনকৃত টিউবওয়েল ও কৃষক ছাউনির উদ্বোধন করেন প্রয়াত খন্দকার আশরাফ আলীর সন্তানগন ও এলাকার কৃষক সমাজ। বিকেলে উক্ত মাঠে বালিয়াপাড়া শাহী জামে মসজিদের ইমাম ইসমাইল হুজুরের দোয়া ও মোনাজাতের মাধ্যমে তা উদ্বোধন করা হয়।

একটি বিষয় আমরা যে, প্রতিদিন ভাত খাচ্ছি সেই ভাত গুলো আসছে কোথা থেকে। বিষয়টা আমরা সকলেই জানি। ধান থেকে চাউল হচ্ছে উক্ত চাউল দিয়ে আমরা ভাত রান্না করে খাচ্ছি। কিন্তু উক্ত ভাতের পিছনে যেসকল ব্যক্তিগণ মাথার ঘাম পায়ে ফেলে রোদ বৃষ্টিতে ভিজে মাঠে ধানের চারা রোপন করে সেটা তুলে আবার অন্য জায়গাতে রোপণ করে একটি নির্দিষ্ট সময়ে উক্ত কৃষকরা মাঠ থেকে ধান কেটে সেগুলো নিজ বাড়িতে এনে মাড়াই করে শুকিয়ে বাজারে বিক্রি করছে। উক্ত ধান বিভিন্ন মিল কারখানাতে চলে যাচ্ছে সেখান থেকে তৈরি হচ্ছে চাউল, উক্ত চাউল ক্রয় করে রান্না করে ভাত বানিয়ে খাচ্ছি।

কৃষকরা শুধু ধানই উৎপাদন করেন না, ১২ মাস ধরে তারা সঙ্গে বিভিন্ন ধরনের রবি শস্য উৎপাদন করে চলেছেন। যা আমরা প্রতিনিয়ত বাজার থেকে ক্রয় করে খেয়ে জীবন ধারণ করছি। কিন্তু আমরা কি ঐ সকল দিনমজুর খেটে খাওয়া কৃষকদের কষ্টের কথা কখনো মাথায় আনতে পেরেছি কি ? এই চিন্তা ভাবনা কেউ কখনো হয়ত করেন নাই, করেছে একজন ব্যক্তি তিনি হলেন কুষ্টিয়া জেলার একজন কৃতি সন্তান ও সকলের নয়ন মনি বিশিষ্ট সমাজসেবক কুষ্টিয়া সরকারি কলেজের অবসর প্রাপ্ত প্রফেসর নেহাল স্যারের আমেরিকা প্রবাসী সন্তান জয় নেহাল।

হঠাৎ করেই তার মাথায় কৃষক পরিবারের কষ্টের কথা প্রতিবেদক এর কাছ থেকে শোনার পর তিনি তাৎক্ষণিকভাবে বালিয়াপাড়া গ্রামের খন্দকার পরিবারের সন্তান শাহীন রেজার সঙ্গে বিষয়টি শেয়ার করে দ্রুতগতিতে বালিয়াপাড়া মাঠে একটি টিউবওয়েল স্থাপন করেন। উদ্বোধনকৃত টিউবওয়েল ও কৃষক ছাওনি যে স্থানে উদ্বোধন করা হয়েছে ঠিক ঐ স্থানে কিছুদিন আগে একজন কৃষক মাঠে কাজ করতে করতে হিটস্ট্রোক করেন। কিন্তু ওই সময় সেখানে কোনো পানি ছিল না অবশেষে মাঠের কৃষকরা এসে তাকে ক্যানেলের নোংরা পানি মাথা ও তার শরীরে ঢেলে কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। ঠিক তারপর দিনই উক্ত স্থানে এই টিউবওয়েলটি স্থাপন করা হয়েছিল, যার উদ্বোধন হল রবিবার বিকেলে।

টিউবওয়েল ও কৃষক ছাওনি উদ্বোধনের সময় উপস্থিত ছিলেন প্রয়াত খোন্দকার আশরাফ আলীর বড় ছেলে সহকারি যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা কে এম শামীম রেজা, মেজ ছেলে কে এম শাহীন রেজা, তাদের জামাতা হাজী সোহরাব হোসেন (শিক্ষক), মিন্টু হোসাইন, ওমর আলী, ইকরাম, জুমারত ফারাজী, আশরাফ আলী, আবু মন্ডল মুকুল, দিন ফকির, লুৎফর, রুহুল সাত্তার আলী, কাসেম আলী, কায়েস আলী, পারভেজ আলীসহ এলাকার অসংখ্য কৃষক সমাজের ব্যক্তিবর্গরা

আমেরিকা প্রবাসী জয় নেহাল এক বার্তায় বলেন, কুষ্টিয়া শহরে বসবাসরত বাসিন্দারা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন স্থান থেকে সহযোগিতা পেয়ে থাকে কিন্তু গ্রামের বাসিন্দারা এই ধরনের সুযোগ-সুবিধা থেকে সম্পূর্ণরূপে বঞ্চিত থাকে যা আমি শুধু আমেরিকাতে থেকে এটা অনুমান করতে পেরেছি। যে কারণেই এবার আমরা শহর ছেড়ে গ্রামের কৃষকদের পাশে দাঁড়িয়ে সেবা করে যেতে চাই যারা আমাদেরকে প্রতিনিয়ত আহার যোগাচ্ছেন। আমি আগামীতে গ্রামের ক্ষেত আমার অঞ্চলের কিছু স্থানে টিউবওয়েল স্থাপন করতে চাই। আজ আমি বালিয়াপাড়া গ্রামের খন্দকার পরিবারের মেজ সন্তান শাহিন রেজা আমার বড় ভাই সমতুল্য আমি তাকে শ্রদ্ধা ও সম্মান করি। কুষ্টিয়া সরকারি কলেজে অধ্যয়নরত অবস্থায় তার সাথে যে সম্পর্ক ছিল তা আজও বিদ্যমান রয়েছে, যে কারণেই তার অনুপ্রেরণা ও তার নিরলস পরিশ্রমের কারণে আজ আমি সুদূর প্রবাসে বসে মানুষের সেবা করে যেতে পারছি। তিনি আরো বলেন, আপনারা আমি ও আমার পরিবারের জন্য দোয়া করবেন, আমরা যেন সুদূর প্রবাসে বসে পরিবার পরিজন নিয়ে ভালো থাকতে পারি

টিউবওয়েল ও কৃষক ছাউনি উদ্বোধনের সময় গ্রামের কৃষকরা খন্দকার পরিবারের কাছে দাবি জানিয়ে বলেন, বিশালাকৃতির এই মাঠে আরো কয়েকটি টিউবওয়েল স্থাপন করলে আরো অনেক কৃষক পানি পান করে মহান আল্লাহ পাকের দরবারে সারা জীবন দোয়া করে যেতে পারবেন বলে সকলেই তাদের অনুভূতির কথা ব্যক্ত করেন।

নিউজটি শেয়ার করে আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
© All rights reserved © 2021-2022 । প্রতিবাদী কন্ঠ
Design and Developed by DONET IT
SheraWeb.Com_2580